মাছ চাষ কিভাবে করবেন

Leave a Comment
মাছ চাষ
মাছ কে না ভালো বাসে। মাছ চাষ একটি বিশাল চাহিদা ভারত ও বাঙলাদেশে। মাছ হল মানুষের সবচেয়ে  প্রিয় আইটেম খাদ্য মেনু  প্রায়  60 শতাংশ বাঙালির দূপূরের খাবার মাছ ভাত। মাছ খাওয়াও যেমন উপকার তেমন মাছের ব্যাবসায়ও দারুণ লাভ। আর এটা সহজেই পাওয়া যায়, চাষ করাও সম্ভব।এটা আপনি আপনার পুকুরেও করতে পারেন। এছাড়া কাছের নদীতেও জাল দিলে বিভিন্ন ধরনের নানা রকম  মাছ পাওয়া যায়। কম খরচে কম পরিশ্রমে আপনি শুরু করতে পারেন মাছ চাষ ও বিক্রি। মাছ চাষের সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের পশু, পাখি, ফসল ও সবজির ব্যাবসা ও করা যায়। খাওয়ানোর খরচ ও অনেক কম।মাছ ভারতে ব্যবসা করা হয়, সত্যিই খুব লাভজনক ও ঝুঁকি কম  এই ব্যবসাই। মাছ চাষ স্বধীনতা ও স্থায়ী আয়ের ভালো সুযোগ স্বল্প ব্যয়ে এই পেশা শুরু করতে পারেন। তাছাড়া এই পেশার জন্য আপনি ব্যাংকে ঋণের আবেদন করতে পারেন আপনার কাছে যদি উপযূক্ত জমি বা পুকুর থাকে সহজেয় এই ব্যাবসা করতে পারেন। আপনি যদি নতুন শুরু করেন তাহলে কম পুজিতে ছোট মাছের খামার করুন।তাছারা এই চাষ করার জন্য আপনি আগে ৫ জনার পরামর্শ নিন এবং জেলেদের সাথে কথা  বলুন এর ফলে আপনার কিছু অভিঙ্গতা বারবে। এই বিষয় কিছু পদ্ধতি তারাতাড়ি আপনাদের বলবো।

কেন করবেন মাছ চাষ
শুধু ভারতে নয় এখন গোটা বিশ্যে দিন দিন মাছের চাহীদা বেরেয় চলেছে তার মূল কারণ মাছ খেতে ভালো এবং এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ প্রোটিন ও ভিটামিন এই জান্য গোটা বিশ্যে এর দাম দিন দিন বেরেয় চলছে। মাছ সবথেকে বেশি সমুদ্রে আর নদীতে পাওয়া যায়। বর্তমানে মানুষ নতুন নতুন উপায়ে মাছ ধরছে এমনকি ছোট মাছ গূলোও ছারে না। তাই মাছ না পাওয়ার ফলে মাছের দাম বেরেয় চলছে।আর বেশির ভাগ যুবক মাছের ফার্ম করছে।

মাছ চাষের প্রস্তুতি কিভাবে নেবেন

মাছ চাষের জন্য সবথেকে আগে প্রয়োজন একটা পুকুর বা চৌবাচ্চা মাছ রাখার জন্য। যাতে মাছ বড় হতে পারে। এতে আপনার যেটা খরচ হবে তার থেকে লাভ অনেক বেশি সোজা কথায় ৫-১০ গূন বেশি। এটা করার জন্য অবশ্যই একটু জায়গার দরকার।মাছ শীতে ধীরে বারে তাই মাছ চাষের জন্য সঠিক জায়গার প্রয়োজন। পুকুর বা চৌবাচ্চা আপনি অনেক রকম ভাবে করতে পারেন। যেমন আপনি যদি সময় বাচাতে চান তাহলে প্লাস্টিকের বরো বরো ড্রাম কিনে নিতে পারেন। যদি আপনি পুকুর করতে চান তাহলে মেশিনের সাহায্যে করতে পারেন।যদি আপনার পয়সা কম থাকে তাহলে কোদাল বা বেলচা দিয়ে নিজে করতে পারেন। হয়ে যাবার পর বিলিচীং পাউডার ও মাটিতে একটু চূন দেবেন এটা করলে মাছের খতি করার মতো কোন পোকামাকড় মাটিতে থাকে না।


মাছের খাবার ও জল পরিখ্যা


মাছের ব্যবসায় তারা তারি বরো হবার জন্য অবশ্যই আপনাকে আগে থেকে তাদের খাবার যোগার করে রাখতে হবে এবং সময় মতো দিতে হবে। সাথে জল খারাপ হলে পরিবর্তন করতে হবে। মাছের অনেক রকম প্রজাতি আছে যেকোনো একটা প্রজাতির মাছ চাষ করায় ভালো। রুই, কাতলা,মাগূর, পুঁটি মরোলা এগূলো চাষের বিষেস লাভ হয়আর সহজে পাওয়া যায় দামও অনেক কম। পুকুরের জল নিয়ম করে মাসে দুবার পরিষ্কার করতে হবে। আর পুকুরের জল সব সময় ভর্তী রাখবেন।  দরকার পরলে অন্য কারোর সাহায্য নেবেন।





If you like this article share this in your social sites
Next PostNewer Post Previous PostOlder Post Home

0 Comments:

Post a comment