Chingari apps full details in bengali ( Tiktok alternative indian app)

Leave a Comment
যেমনটা আপনারা জানেন ভারতে ৫৯ টি চাইনিজ এপস ব্যান করা হয়েছে তাই হয়তো অনেকের সমস্যা হচ্ছে কিন্তু এর আগে আমরা আপনাদের জানিয়ে ছিলাম ৫৯ টি চাইনিজ এপস এর পরিবর্তে আপনি কোন এপস ব্যবহার করতে পারেন। আজ আমরা জানবো tiktok alternative ভারতীয় এপস।

টিকটক একটি ভিডিও আপলোডিং এবং শেয়ারিং চাইনিজ এপস। খুব কম সময়েই টিকটক ভারতে নিজের একটা জায়গা দখল করে নিয়েছিল।আজ টিকটক বন্ধ হয়েযেতে ভারতের একটি এপস খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে চিঙ্গারি এপস। 

টিকটকের মতই এখানে সব কিছু পাবেন যেমন ভিডিও আপলোড। ভিডিওতে মিউজিক যুক্ত এবং চিঙ্গারি এপস থেকে টাকা ইনকামও করতে পারবেন। একদিনেই ১ লাখের বেশি মানুষ chingari app টি ডাউনলোড করেছেন। তবে আসুন জেনে নেওয়া যাক Chingari apps full details in bengali.
Chingari app which country made
Chingari App

Chingari apps full details in bengali

হঠাৎ এই এপসটি জনপ্রিয় হয়ে ওঠাই আপনার মনে অনেক রকম প্রশ্ন আসতে পারে এই এপস দিয়ে কি কি করা যায়। কোন দেশের এপস এটি। চিঙ্গারি এপস এর প্রতিষ্ঠাতা কে আরও অনেক প্রশ্ন আপনার থাকতে পারে যেমন.... 
  • Chingari app which country 
  • Chingari app origin country 
  • chingari app founder 
  • Chingari app owner 
  • Chingari app developer
  • চিংগাড়ি এপস 
যদিও আমরা chingari app wikipedia খুজছিলাম কিন্তু খুঁজে পাইনি তবু এই এপস এর বিষয় সম্পূর্ণ তথ্য আপনাদের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।

চিঙ্গারি এপস ভারতের তৈরি একটি short video app যার প্রতিষ্ঠাতা Biswatma Nayak এবং Sumit Ghosh কোন এক প্রেস কনফারেন্সে সুমিত ঘোষ জানান প্রতি ঘন্টায় এই এপস ১ লাখের বেশি ডাউনলোড এবং প্রতি মিনিটে ১০ হাজার ভিডিও ভিউ হচ্ছে।

Chingari app কি?

চিঙ্গারি এপস থেকে আপনি ভিডিও আপলোডিং ছাড়াও হোয়াটসঅ্যাপ এর মতন চাটিং স্টাটাস শেয়ারের সুবিধা পাবেন। chingari app ইংরেজি ছাড়াও আরও ১০ টি ভাষায় ব্যবহার করা যায় যার মধ্যে হিন্দি, বাংলাও রয়েছে।

নভেম্বর মাসে ২০১৮ সালে চিঙ্গারি এপস প্রতিষ্ঠা হয় কিন্তু তখন অতটা জনপ্রিয় হয়ে ওঠেনি। পরে টিকটক ব্যান হওয়াতে tiktok alternative app বা টিকটক কে টক্কর দেওয়ার এপস হিসেবে খুব লোকপ্রিয় হয়ে উঠেছে চিঙ্গারি এপস।

  • chingari app ভারতের তৈরি। 
  • এটি একটি short video এপস।
  • chingari app owner sumit ghosh
  • ১০ টি ভাষায় ব্যবহার করা যায়।
  • ম্যাসেজ, স্টাটাস এর সুবিধা রয়েছে। 

চিঙ্গারি এপস কিভাবে ডাউনলোড করবো/ How to download chingari app

চিঙ্গারি এপস আপনি প্লেস্টোর থেকে অথবা Google থেকে খুব সহজে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। প্লেস্টোরে এখন best indian app হিসেবে চিংগাড়ি এপসটিকে ওপরে রেখেছে। আপনি প্লেস্টোরে Chingari লিখে সার্চ করলে পেয়ে যাবেন। 
  1. Go to play store
  2. search chingari app 
  3. install chingari app 
How to download chingari app

    download chingari app


Reviews - 99k
Size - 34 mb
Users - 10,000,000
Download Chingari app
#ChingariApp Websites
Read More

ব্যান হওয়া চাইনিজ app গুলোর বদলে কী ব্যবহার করবেন

Leave a Comment
ভারত সরকারের নতুন পদক্ষেপে ব্যান হয়ে গেছে 59টি চাইনিজ app । তো দেখে নিন সেই app গুলোর বদলে কী app ব্যবহার করতে পারেন।

লাইক, kwai, হেলো, বিগো লাইভ, ভিগো লাইভ, ভিমেট, টিকটকের বদলে বোলো ইন্ডিয়া( ভারতীয়)
bolo indya app

, রোপসো( ভারতীয়), 
roposo app

চিঙ্গারী(ভারতীয়) ,
chingari app

 ডাবসম্যাশ ইত্যাদি।

শেয়ার ইট, জেন্ডার, ই.এস. ফাইল এক্সপ্লোরার এর বদলে ফাইলস বাই গুগল, শেয়ারঅল( ভারতীয়)
share all

, Z শেয়ার (ভারতীয়)
Z share
Z share
 , জিও সুইচ (ভারতীয়) 
Jio switch

, সলিড এক্সপ্লোরার, গুগ্লস ড্রাইভ, ড্রপবক্স, সেন্ড anywhere, স্মার্ট শেয়ার ইত্যাদি।

U.C. ব্রাউজার, C.M. ব্রাউজার, এপাস ব্রাউজার এর বদলে গুগল ক্রোম, জিও ব্রাউজার(ভারতীয়) 
jio browser

, এপিক ওয়েব ব্রাউজার ( ভারতীয়) 
Epic privacy browser

, মোজিলা ফায়ার ফক্স, মাইক্রোসফট এজ, অপেরা ইত্যাদি।

ক্যামস্ক্যানার এর বদলে এডব স্ক্যান, মাইক্রোসফট লেন্স, কাগজ স্ক্যানার ( ভারতীয়)
kaagaz scanner

 ইত্যাদি।

ইউক্যাম, সেলফি সিটি,মেইটু, ওয়ান্ডার ক্যামেরা, ফটো ওয়ান্ডার, সুইট সেলফি, নিউ ভিডিও স্ট্যাটাস ,বিউটিপ্লাসের বদলে B612 বিউটি এন্ড ফিল্টার ক্যামেরা, ক্যান্ডি ক্যামেরা, ইন্ডিয়ান সেলফি ক্যামেরা 
indian selfi camera

(ভারতীয়) , পিক্সআর্ট, ফেসটিউন 2, লাইটরুম, snapseed ইত্যাদি।

ক্লাব ফ্যাক্টরি, শেইন, ROMWE এর বদলে আমাজন ইন্ডিয়া, কুভস, মিন্ত্রা( ভারতীয়) 
myntra online shopping app

, আজিও ( ভারতীয়) 
ajio online shopping app

, লাইম রোড, ইন্ডিয়ামার্ট ( ভারতীয়)
indiamart

 ইত্যাদি।

ভিভা ভিডিওর বদলে কিনেমাস্টার, পাওয়ার ডিরেক্টর ইত্যাদি।

U.C. নিউজ, নিউজডগ, QQ নিউজফিড এর বদলে গুগল নিউজ, ইনশর্টস (ভারতীয়),
inshorts app

 ডেইলিহান্ট( ভারতীয়)
Dailyhunt

 ইত্যাদি।

প্যারালাল স্পেস এর বদলে app ক্লোনার, শেল্টার, ক্লোন app ইত্যাদি।

বাইডু ম্যাপ এর বদলে ম্যাপ মাই ইন্ডিয়া মুভ ( ভারতীয়), 
map my india

গুগল ম্যাপস  ইত্যাদি। 

ক্ল্যাশ অফ কিংস, মোবাইল লেজেন্ডস এর বদলে লুডো কিং ( ভারতীয়)।
ludo king


ভাইরাস ক্লিনার, QQ সিকিউরিটি সেন্টার এর বদলে K7 টোটাল সিকিউরিটি, এভাস্ট এন্টি-ভাইরাস, 1পাসওয়ার্ড ইত্যাদি।

QQ মেইল, মেইলমাস্টার এর বদলে মাইক্রোসফট আউটলুক, জিমেইল ইত্যাদি।

Weibo এর বদলে টুইটার।

QQ মিউজিক এর বদলে spotify, জিওসাভান ( ভারতীয়)
jio saavn

 , ইউটিউব মিউজিক, উইনক মিউজিক ( ভারতীয়)
wynk music

 ইত্যাদি। 

মিভিডিও কল এর বদলে জিওমিট( ভারতীয়) ,
jio meet

 সে নামস্তে ( ভারতীয়)


 , গুগল মিট, স্কাইপ মিট নাউ, গুগল ডুও, ফেসবুক মেসেঞ্জার ইত্যাদি।

উইসিনক এর বদলে গুগল কন্টাক্টস।

D.U. রেকর্ডার এর বদলে A.Z. স্ক্রিন রেকর্ডার, স্ক্রিন রেকর্ডার নো এডস ইত্যাদি। 

ভল্টহাইড, D.U. প্রাইভেসি এর বদলে কিপসেফ ইত্যাদি।

QQ প্লেয়ার এর বদলে CnX প্লেয়ার, VLC মিডিয়া প্লেয়ার।

উইমিট, হেলো এর বদলে কোয়াক কোয়াক, হোলা, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি।

বাইডু ট্রান্সলেট এর বদলে গুগল ট্রান্সলেট, হি ট্রান্সলেট ইত্যাদি। 

D.U. ব্যাটারি সেভার এর বদলে গ্রিনিফাই, ব্যাটারি সেভার এন্ড চার্জ অপ্টিমাইজার ইত্যাদি। 

উইচ্যাট, QQ ইন্টারন্যাশনাল এর বদলে whatsapp।

Cache Cleaner DU App studio, DU Cleaner, ক্লিন মাস্টার এর বদলে Cক্লিনার norton ক্লিনার ইত্যাদি।

হাগো প্লে উইথ ফ্রেন্ডস এর বদলে snapchat, হাউজপার্টি ইত্যাদি। 





Read More

সিন সিস্টার (হই চই) মুভি রিভিউ

Leave a Comment
সিনেমার নাম: সিন সিস্টার
ক্যাটাগরি: সাইকোলজিকাল থ্রিলার, রহস্য
ভাষা: বাংলা
পরিচালক: শুভব্রত চ্যাটার্জি
অভিনয়: দেবলীনা দত্ত, তথাগত মুখার্জি, রূপঙ্কর বাগচী, তুহিনা দাস প্রমুখ।
রেটিং: 2.5/5

সিন সিস্টার (হই চই) মুভি রিভিউ
সিন সিস্টার মুভি


 প্লট/গল্প:
অস্ট্রেলিয়ান নভেলিস্ট গ্যারি হেমারের সিন সিস্টার উপন্যাস অনুসারে এই সিনেমা। একই রকম দেখতে যমজ বোন পিউ আর কুহু( দেবলীনা দত্ত) বিখ্যাত তরুণ লেখক দুর্জয় মিত্র( তথাগত মুখার্জি) এর সহকারী হিসাবে কাজে যোগ দেয়। দুজনেই দুর্জয় মিত্রকে ভালোবাসে এবং সেটা ঘিরেই তাদের মধ্যে দ্বন্দ্বের শুরু হয়। সেই সময়েই দুর্জয় মিত্র এর বাগদত্তা তনুশ্রী ( তুহিনা দাস) এর অস্বাভাবিক মৃত্যু হয় বহুতল থেকে নিচে পড়ে। বিচক্ষণ পুলিশ ডিটেক্টিভ অগ্নিবেশ চ্যাটার্জি( রূপঙ্কর বাগচী) এর রহস্য সমাধানে নেমে পড়েন। 

অভিনয়: 
রূপঙ্কর বাগচীকে আমরা চিনি তাঁর গানের জন্য কিন্তু এখানে তিনি পুলিশ ডিটেক্টিভের চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় করেছেন।

দেবলীনা দত্তের অভিনয় যথেষ্ট বলিষ্ঠ যমজ বোনের চরিত্রে।

তথাগত মুখার্জিও যথাযথ অভিনয় করেছে লেখকের চরিত্রে। 

তুহিনা দাস একজন দুর্দান্ত অভিনেত্রী, আরো কিছুক্ষণ তাকে সিনেমাতে রাখলে ভালো হতো।

সাসপেন্স ভালোই, কিন্তু বড়োই গুলিয়ে যাওয়ার মতো। মোটের উপর খারাপ না। দেখে ফেলতেই পারেন এই লকডাউনে সিন সিস্টার। হই চই, MX প্লেয়ার, আমাজন প্রাইম, এয়ারটেল এক্সট্রিম, ভোডাফোন প্লে, আইডিয়া মুভিজ এ দেখতে পারেন। 

উইকিপিডিয়ার লিংক:

Read More

দিল্লী-6 মুভি রিভিউ

Leave a Comment
সিনেমার নাম: দিল্লী-6 (2009)
ক্যাটাগরি: ড্রামা
পরিচালক: রাকেশ ওম প্রকাশ মেহরা
অভিনয়: সোনম কাপুর , অভিষেক বচ্চন, ওয়াহিদা রহমান, ঋষি কাপুর, ওম পুরি, দিব্যা দত্ত, অতুল কুলকার্নি, প্রেম চোপড়া, অদিতি রাও হায়দারি, বিজয় রাজ, অমিতাভ বচ্চন, সুপ্রিয়া পাঠক ইত্যাদি। 
রেটিং: 4.5/5

                                    দিল্লী-6

লকডাউন এ অনেকে বাড়ি বসে সিনেমা দেখছেন, কারণ এমনি সময়, সময়ের অভাবে তা হয়না, এখন অনেক সময় তাই সিনেমা দেখা যায়। তো আমি তাই আপনাদের সিনেমার রিভিউ দেব। উপরে দেখে বুঝেই গেছেন আমি 2009 এর দিল্লী-6 এর উপর। চলুন শুরু করা যাক।

2009 এর সিনেমা, এখনো দেখে পুরোনো মনে হয়না, কারণ বর্তমান পরিস্থিতিতে যথেষ্ট রিলেটাবল। এক newyork এর NRI রোশান( অভিষেক বচ্চন) তার অসুস্থ ঠাকুমাকে( ওয়াহিদা রহমান) নিয়ে দেশে ফেরে কারণ ঠাকুমার ইচ্ছা জীবনের শেষ দিনগুলো দেশের বাড়িতে কাটবে, দিল্লীতে। সেখানে তাদের প্রতিবেশীরা তাদের পরিবারের মতোই মনে করে, তার মধ্যে আছে পাশের বাড়ির দুই ভাই, তাদের দুজনের বউ, তাদের অবিবাহিতা বোন, এবং বড় ভাইয়ের মেয়ে মুক্তবিহঙ্গ বিট্টু( সোনম কাপুর) যার স্বপ্ন পরবর্তী ইন্ডিয়ান আইডল হওয়ার। এবং তখনই শুরু হয় এক রহস্যময় 'কালা বান্দর' নামক জীবের উৎপাত এবং তাতে রোশনের জড়িয়ে পড়া।

পরিচালক রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা খুব সুন্দরভাবে বর্তমান পরিস্থিতি পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন। এই ছবিতে খুব সুন্দরভাবে পুরোনো দিল্লী, চাঁদনী চকের বাজার, লাল কেল্লা, সরু গলি, হাভেলি, ঘুড়ি ওড়ানো, গরুর পুজো, রিকশা, জিলিপি-ফুচকা, গেরুয়া বস্ত্র, সাদা ফেজ টুপি, সমাজ, নস্টালজিয়া, সেখানকার মানুষজনদের একজন আমেরিকান NRI এর চোখ দিয়ে দেখিয়েছেন এবং বর্ণনা করেছেন। সিনেমার গল্পের সাথে যেভাবে উপমা সহকারে রামলীলা বর্ণনা করা হয়েছে সেটাও প্রশংসার দাবী রাখে। মূল বিষয়বস্তু সাম্প্রদায়িক সংঘাত, প্রত্যেক সম্প্রদায়ই রোশনকে প্রথমে আপন করলেও পরে প্ররোচনায় সবাই ত্যাগ করে কারণ তার বাবা হিন্দু মা মুসলমান, তাই সে দুধর্মেরই অর্ধেক অর্ধেক, এবং দু ধর্মকেই পালন করে। এর সাথে কাস্ট সিস্টেম, কুসংস্কার, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাঁধতে প্ররোচনা দেওয়া রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীরা, তাতে ইন্ধন দেওয়া মিডিয়া, মন্দির-মসজিদ সংঘাত ইত্যাদি সমাজের বিভিন্ন খারাপ দিক তুলে ধরা হয়েছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নিয়ে এই সিনেমা। এখানে মামদু মক্কা মদিনা আর হনুমান উভয়েই বিশ্বাস করে কিন্তু কিভাবে প্ররোচনায় তার মিষ্টির দোকান নষ্ট করে দেওয়া হয় এবং সে হিংস্র হয়ে যায় দেখা যায়। 

এটা অভিষেক বচ্চনের অন্যতম শ্রেষ্ঠ অভিনয়, সোনম কাপুরকেও সাধারণ বাড়ির মেয়ে হিসাবে দেখা যায়। এছাড়া দিব্যা দত্ত, ঋষি কাপুর, বিজয় রাজ, ওম পুরি সবার অভিনয় প্রশংসাযোগ্য। কিন্তু আমার মতে ওয়াহিদা রহমানের অভিনয় সবচেয়ে সেরা। এবং অথিতি অভিনেতা হিসেবে অমিতাভ বচ্চনও বেশ ভালো। 

এই সিনেমার গান নিয়ে আলাদা করে বলতেই হয়। এ.আর. রহমানের সংগীত পরিচালনা এই সিনেমার প্রতি মুহূর্তকে জীবন্ত করে তুলেছে। তার মন্দির-মসজিদ নিয়ে গান, 'মাসাকালি' নামে এক পায়রাকে নিয়ে গান, 'রেহনা তু' যেন দিল্লী শহরকেই বলা হচ্ছে। সবগান নিয়ে এই এলবামটাই হিন্দি সিনেমার গানের জগতের দৃষ্টান্ত। এর সাথে এর কথা বা লিরিক্স।

প্রচুর উপমার সাহায্যে বেশ কিছু বার্তা দেওয়া হয়েছে দর্শকদের। চাইলে দেখে নিতেই পারেন সিনেমাটা এই লকডাউনে। ইউটিউবে বা গুগল প্লে তে সিনেমা কিনে পারেন, নাহলে নেটফ্লিক্স আর আমাজন প্রাইমে পেয়ে যাবেন সিনেমাটা। 

 উইকিপিডিয়ার লিংক:
https://en.wikipedia.org/wiki/Delhi-6

নমস্কার, ভালো থাকবেন। 


Read More

ব্লগে seo friendly পোস্ট বা আর্টিকেল লেখার নিয়ম

1 comment
আমরা google এ সার্চ করে বা ইউটিউব ভিডিও দেখে একটা ব্লগ সাইটতো তৈরি করে নিই কিন্তু যখনিই আমরা ব্লগে লেখালিখি শুরু করি দেখা যায় আমাদের ব্লগের পোস্ট google search engine এ আসছে না। এর কারণ হতে পারে ব্লগে পোস্ট করার নিয়ম সঠিক নিয়ম আমাদের জানা নেই।

যদি আপনি একজন ব্লগার হয়ে থাকেন তবে আপনি একটা জিনিস নিশ্চয় খেয়াল করেছেন সার্চইঞ্জিনে সেই সকল পোস্ট বেশি রেংর্ক করে যেগুলো অনেক লম্বা আর ইউনিক হয়। কিন্তু আমরা ব্লগে লেখার সময় এগুলো খেয়াল রাখিনা আর হিজিবিজি লিখতে থাকি তার ফলে আমাদের ব্লগ পোস্ট সহজে রেংর্ক করেনা।

ব্লগ লেখার নিয়ম জানার আগে আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে আর্টিকেল নিজে লেখার চেষ্টা করবেন আর সুন্দর ভাবে লিখবেন যাতে কোন ভিজিটর আপনার ব্লগ পোস্ট পড়ে বোরিং না হয় আর সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে।

আপনি যদি নতুন ব্লগার হয়ে থাকেন আর ব্লগে কিভাবে লিখতে হয় এই ধারণা না থাকে আর আপনার ব্লগ সাইট যদি বাংলায় হয় তবে আপনি bn.quora.com সাইটে সকলের উত্তর দেখে ও নিজে লেখালিখি করেও অনেক জ্ঞান আহরণ করতে পারেন।
বাংলা ব্লগে পোস্ট বা আর্টিকেল লেখার নিয়ম
ব্লগ লেখার নিয়ম


বাংলা ব্লগে পোস্ট বা আর্টিকেল লেখার নিয়ম



আমাদের মধ্যে এমন অনেক বাংলা ব্লগার রয়েছেন যারা বাংলা আর্টিকেল লিখে টাকা আয় করার জন্য তাদের ব্লগে daily অনেক পোস্ট লেখেন কিন্তু দেখা যায় তাদের ১০ টা পোস্টের মধ্যে ১ টা সার্চইঞ্জিনে আসছে আর বাকি গুলো খুঁজেই পাওয়া যায় না।

পোস্ট কাউন্ট করার জন্য ব্লগে পোস্ট করার থেকে ভাল একটাই পোস্ট লিখুন অনেক সময় নিয়ে। আপনার ব্লগ পোস্ট আপনার পছন্দ না হলে google বা আপনার ভিজিটরের পছন্দ হবে কি ভাবে।

যেমন পরিক্ষার খাতায় ভাল লিখলে বেশি নাম্বার পায় আর খারাপ লিখলে কম নাম্বার পায় এটাও তেমনি বিষয় এখানেও কম্পিটিশন হয় আর যে যত ভাল লেখালিখি করবে google তাদের সার্চে সেই ব্লগ কে প্রথম সারিতে নিয়ে আসবে।
powered by blogger কিভাবে রিমুভ করে?
ব্লগে সোশ্যাল শেয়ার বটন কিভাবে যুক্ত করে?

ব্লগে কিভাবে একটি আর্টিকেল লিখতে হয় জানার আগে আপনি যেই বিষয় লিখতে চায়ছেন অবশ্যই সেটা গুগলে একবার সার্চ করে দেখেনেবেন সেই বিষয়ে অন্য কেউ আপনার আগে পোস্ট করেছে কি না যদি করে তাহলে আপনি তার থেকে একটু আলাদা ভাবে লেখার চেষ্টা করুন।

আপনার আর্টিকেল রিলেটেড আরও ৫-৬ টা পোস্ট পড়ুন আর সেখান থেকে important word গুলো কাউন্ট করুন। আপনার আর্টিকেল রিলেটেড শব্দ গুলোই শুধু পোস্টে জুড়বেন তবে কোথাও থেকে কপি করে না অন্যের পোস্ট থেকে আপনি শুধু ধারনা নিতে পারেন।

ব্লগে এমন আর্টিকেল লিখুন যাতে সকলের পছন্দ হয়। ব্লগে এমন আর্টিকেল লিখুন যেটা একবার পড়লে দ্বিতীয়বার পড়তেও ভাল লাগবে। ব্লগে এমন আর্টিকেল লিখুন যেখান থেকে নতুন কিছু শেখা বা জানা যায়। ব্লগে এমন আর্টিকেল লিখুন যেটা শেয়ার করতে ইচ্ছে করবে।

ব্লগে seo friendly পোস্ট বা আর্টিকেল লেখার নিয়ম



গুগলে রেংক করার জন্য আর্টিকেল কেমন হওয়া প্রয়োজন এই ধারণাটা আমরা ওপরে পেয়ে গেলাম এবার আমরা ধাপে ধাপে জানবো ব্লগে seo friendly পোস্ট বা আর্টিকেল কিভাবে লিখতে হয় যাতে আমাদের ব্লগ গুগলের প্রথম সারিতে তাড়াতাড়ি আসে।

Post titles- ব্লগ পোস্ট টাইটেল একটা most powerful parts for ranking your blog আপনার ব্লগ পোস্ট রিলেটেড ব্লগ টাইটেল রাখবেন এবং তার সাথে কিছু important word যুক্ত করতে পারেন যেমন top10, new, latest, powerful etc.

post introduction- পোস্ট লেখার আগে আপনি কোন বিষয় নিয়ে পোস্ট লিখছেন সংখ্যেপে তার বর্ণনা দিন যাতে আপনার ভিজিটর পোস্ট পড়তে শুরু করলে সে impress হয়।

post heading- ব্লগ লেখার সময় আমরা যেই টাইটেল ব্যাবহার করি আমাদের ব্লগের পোস্টেও সেটা বা সেই রিলেটেড আরও হেডিং দেওয়া প্রয়োজন যাতে ভিজিটরের বুঝতে সুবিধা হয়। ব্লগারে heading, subheading আর minior heading এগুলো আপনি পোস্টে ব্যাবহার করতে পারেন এছাড়াও পোস্টে italics, bold, under line দিতে পারেন।

ব্লগে robot.txt ফাইল যুক্ত করার নিয়ম
ব্লগে meta tag কোড যুক্ত করার নিয়ম

post content- ব্লগে এসসিও ফ্রেন্ডলি পোস্ট লিখতে হলে মিনিমাম আপনার পোস্ট ৫০০ থেকে ৭০০ ওয়ার্ডের হতে হবে। এমন পোস্ট সহজেই গুগলে রেংর্ক করে। কিন্তু পোস্ট লম্বা কড়ার জন্য হিজিবিজি লিখবেন না শুধু আপনার পোস্টের বিষয় নিয়েই লিখুন।

post images- সাধারণত post introduction দেওয়ার পরেই পোস্টের একটা copyright free image দেওয়া উচিত। সব সময় ব্লগের জন্য নিজে ইমেজ তৈরি করার চেষ্টা করবেন আর একদম না পারলে pixabay.com বা  shutterstock থেকে নিতে পারেন।

Image caption- আপনার ব্লগ পোস্টে যেই ছবিটি ব্যাবহার করছেন অবশ্যই ছবিটির নাম দেবেন। পোস্টেের ইমেজও অনেকটা পোস্ট রেংর্ক করতে সাহায্য করে। কিন্তু নতুন ব্লগাররা তাড়াহুড়ো করে অনেক সময় এই ভুলটা করে থাকে।

post keywords- ব্লগে লেখার আগে আপনার টপিক অনুযায়ী keywords research করেনিন আর যেসকল বিষয়ে বেশি সার্চ করা হয় সেই কিওর্য়াড গুলো পোস্টে যুক্ত করতে পারেন। এর জন্য আপনি trends.google.com, google keywords planer, ubersuggest, keywords.io ইত্যাদি সাইটের সাহায্য নিতে পারেন।  

post discretion- আপনার পোস্টের জন্য অবশ্যই ১৫০ ওয়ার্ডের একটা description দেবেন যেটা দেখলে ভিজিটরের আপনার পোষ্টের প্রতি আগ্রহ আসে। এই description আপনার পোস্ট টাইটেলের নিচেই গুগল সার্চে আসবে।

post link- পোস্ট লেখার সময় একটা automatic permalink তৈরি হয়ে যায় তবে আপনি চাইলে তাকে customize করতে পারবেন। খেয়াল রাখবেন আপনার পোস্ট লিংক জানো ছোট আর পোস্টের রিলেটেড হয়।

ব্লগে পোস্ট লেখার নিয়ম 

  1. প্রথমে blogger.com সাইটে চলে যান লগইন না থাকলে লগইন করেনিন। 
  2. এবার ব্লগার হোম পেজ থেকে New post ক্লিক করুন।
  3. ওপরের ছোট বক্সে আপনার পোস্ট title দিন।
  4. এবার পোস্ট লেখা শুরু করুন।
  5. link এর পাশে ছবির আইকনে ক্লিক করে একটা ছবি আপলোড করুন।
  6. Label এখানে কোন বিষয়ে পোস্ট সেই tag দিন যেমন রান্নার হলে রেসিপি, খেলার হলে sport ইত্যাদি। 
  7. permalink থেকে পোস্ট titel অনুযায়ী url তৈরি করুন।
  8. search description এ ব্লগ পোস্টের বিষয়ে ১৫০-১৬০ ওয়ার্ডে সংখ্যেপে লিখুন।
  9. এবার আপনার পোস্ট publish করে দিন।
ব্লগ পোস্ট লেখার নিয়ম
শেষ কথা (final word)
বন্ধুরা আমরা এই পোস্টে জানলাম ব্লগ লেখার নিয়ম। যার সাহায্যে আমরা আমাদের ব্লগে সুন্দর একটি এসসিও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখতে পারি। আপনার ব্লগ গুগলে রেংর্ক করতে আমাদের এসসিও রিলেটিভ পোস্ট গুলো পড়তে পারেন আর এই পোস্টের বিষয় কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন। আর আমাদের পোস্ট আপনার ভাল লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে উতসাহ দেবেন ধন্যবাদ।
Read More

ঘরে বসে গুগল থেকে অনলাইনে ইনকাম করার ৫ টি সেরা কার্যকর উপায়

Leave a Comment
ইন্টারনেটের যুগে অনলাইনে টাকা আয় করা এখন অনেক সহজ হয়ে গেছে। তবু আমরা আমাদের ফ্রি সময় গেম খেলে, ভিডিও দেখে, সোশ্যাল মিডিয়ায় নষ্ট করছি। কিন্তু কখনো কি আপনি ভেবে দেখেছেন এই ফ্রি সময়টাকে কাজে লাগিয়ে কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করা যায়। 

আমরা প্রায় শুনি অনলাইনে ইনকাম করা যায় কিন্তু সঠিক তথ্য আমাদের কাছে না থাকার কারণে আমরা অনলাইনে ইনকাম করতে পারি না তাই আজ আপনাদের সাথে আমরা শেয়ার করতে চলেছি অনলাইনে ইনকাম করার সেরা ৫ টা উপায়।

google বিশ্বের সব থেকে বড়ো আর বিশ্বস্ত কম্পানি তাই এখানে আমরা আজ ঘরে বসে গুগল থেকে অনলাইনে আয় করার ৫ টি সেরা উপায় আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। যেখান থেকে প্রতি নিয়ত মানুষ খুব সহজে অনলাইন ইনকাম করছে।
ঘরে বসে গুগল থেকে অনলাইনে ইনকাম করার ৫ টি সেরা কার্যকর উপায়
গুগল থেকে অনলাইন ইনকাম


ঘরে বসে গুগল থেকে অনলাইনে আয় করার ৫ টি সেরা কার্যকর উপায়

ইন্টারনেটের যুগে প্রত্যেক মানুষিই চায় কিভাবে অনলাইন ইনকাম করা যায়। আপনিও যদি Google এ সার্চ করে থাকেন কিভাবে ঘরে বসে গুগল থেকে অনলাইনে আয় করা যায় সেখানে হাজার উত্তর আপনি পেয়ে যাবেন তাই আজ আমরা জানবো গুগল থেকে অনলাইন ইনকাম কিভাবে করবো। top 5 idea earn money from google. 

এমনিতে অনলাইন ইনকাম করার অনেক পদ্ধতি রয়েছে যার মধ্যে আমরা আগেই শেয়ার করেছি মোবাইল দিয়ে অনলাইন ইনকাম /টকা আয় করার এপস আজ আমরা জানবো google থেকে অনলাইন ইনকাম কিভাবে করে। 

প্রথম:- ব্লগার থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো?



blogger হলো গুগলের no1 platform যেখান থেকে আপনি ভাল মানের অনলাইন টকা ইনকাম করতে পারেন। আমরা যখন আমাদের প্রয়োজনীয় কিছু খুঁজি সেটা সর্বপ্রথম গুগলে সার্চ করি কারণ আমরা জানি আমাদের প্রয়োজনীয় জিনিসটা এখানে রয়েছে। 

তেমনি মানুষের প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য আপনি গুগলের free tool blogspot.com থেকে একটি সাইট তৈরি করে সেখানে শেয়ার করতে পারেন। আপনার ব্লগে যত বেশি ভিজিটর আসবে সেই অনুযায়ী আপনি গুগল থেকে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।  

ব্লগিং থেকে টাকা ইনকামের পাশাপাশি আপনি আপনার নিজের বিষয়ে আপনার জানা অজানা তথ্য সকলের সঙ্গে শেয়ার করতে পারেন। আপনার প্রতিভা সকলের কাছে প্রকাশ করতে পারবেন।

ফেসবুকে যদি আপনি কিছু শেয়ার করেন সেটা শুধু মাত্র হাতে গোনা আপনার কয়েকজন বন্ধু দেখতে পায়। কিন্তু আপনি যদি blogger.com থেকে একটা ব্লগ সাইট তৈরি করেন সেটা গোটা বিশ্বের মানুষ দেখতে পাবে।

অনলাইন ইনকাম করার জন্য কিভাবে ব্লগ সাইট তৈরি করবো?
ব্লগ থেকে অনলাইন ইনকাম করার সহজ উপায়
blogger থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো?
blogger থেকে অনলাইন ইনকাম

blogger থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো? 

  1. প্রথমে blogger.com থেকে একটি ব্লগ তৈরি করুন।
  2. আপনার ব্লগের ডোমেইন সিলেক্ট করুন। 
  3. আপনার সাইটের টেমপ্লেট আপলোড করুন।
  4. ব্লগার সেটিং ভাল করে করুন।
  5. ব্লগ গুগল সার্চ কনসোলে সাবমিট করুন।
  6. ব্লগে ইউনিক পোস্ট লিখুন।
  7. ব্লগের পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন।
  8. google adsense এর জন্য আবেদন করুন।
  9. এডসেন্স কোড আপনার ব্লগে জুড়ুন। 
  10. এখন আপনি গুগল থেকে ব্লগের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

দৃতীয়:- ইউটিউব থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো?

ভিডিও কে না দেখতে পছন্দ করে। আজকাল ইন্টারনেট স্পিড অনেক ফাস্ট হওয়ার কারণে বেশির ভাগ মানুষ ইউটিউবে সময় দিচ্ছে কেউ বা ভিডিও তৈরি করছে আবার কেউবা ভিডিও আপলোড করছে। 

ইউটিউব হচ্ছে বিশ্বের সবথেকে বড়ো ভিডিও শেয়ারিং সোশ্যাল সাইট। কেউ বা এখানে movie দেখে, কেউ বা দেখে সিরিয়াল আবার কেউ বা দেখে কাটুন। প্রায় সব ধরনের ভিডিও আপনি এখানে পেয়ে যাবেন। কিন্তু আপনি জানেন কি কারা এই ভিডিও আপলোড করে?

আপনার আমার মতো সাধারণ মানুষ এখানে ভিডিও আপলোড করছে। হয়তো আপনি দেখে থাকবেন কোন ভিডিও চলতে চলতে মাঝের মধ্যে বিজ্ঞাপন দেখায় এই বিজ্ঞাপন থেকেই যে ব্যাক্তি ভিডিও আপলোড করেছে সে google থেকে অনলাইন ইনকাম করে।

আপনিও মনে করলে এমন ভিডিও তৈরি ইউটিউবে আপলোড করতে পারবেন । আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যখন ১০০০ হাজার সাবস্ক্রাইব আর ৪ হাজার ওয়ার্চ টাইম হয়ে যাবে তখন আপনি google adsense এর সাথে আপনার চ্যানেল মনিটাইজ করে গুগল থেকে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।

মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে খুলবো?
ইউটিউবে কিভাবে ভিডিও আপলোড করে?
YouTube থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো?
YouTube থেকে অনলাইন ইনকাম

YouTube থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো? 

  1. প্রথমে youtube.com থেকে একটি চ্যানেল তৈরি করুন।
  2. চ্যানেলের জন্য সুন্দর নাম রাখুন।
  3. YouTube কভার ফটো লাগান। 
  4. চ্যানেলের জন্য সুন্দর logo তৈরি করুন।
  5. ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করুন।
  6. ভিডিওতে customs thumbnail ব্যবহার করুন।
  7. ভিডিওতে title, tag, description দিন। 
  8. সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও শেয়ার করুন।
  9. ১০০০ হাজার সাবস্ক্রাইবার করুন।
  10. আপনার youtube channel গুগল এডসেন্সে জুড়ুন। 
  11. যখনি আপনার চ্যানেল মনিটাইজ হয়ে যাবে আপনার ভিডিওতে বিজ্ঞাপন আশা শুরু হয়ে যাবে। 
  12. এখন আপনি গুগল থেকে ইউটিউবের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। 

তৃতীয়:- google adsense থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো? 



গুগল এডসেন্স এমন এক এড নেটওয়ার্ক যার সাহায্যে আমরা ব্লগ বা ইউটিউব থেকে অনলাইন ইনকাম করতে পারি। গুগল এডসেন্স আমাদের ব্লগে আর ইউটিউবে তাদের বিজ্ঞাপন দেখায় এবং সেই বিজ্ঞাপনে কেউ ক্লিক করলে এডসেন্স আমাদের অর্থ প্রদান করে।

আমরা টিভিতে যেমন কোন বিজ্ঞাপন দেখি এটাও তেমনি। প্রায় সমস্ত ব্লগার আর বড়ো বড়ো ইউটিউবে গুগল এডসেন্স দেখা যায়। যেমনটা আপনি আমাদের ব্লগে দেখছেন এটাও গুগল এডসেন্সের বিজ্ঞাপন।

আপনি যদি গুগল এডসেন্স থেকে অনলাইন ইনকাম করতে চান তার জন্য অবশ্যই আপনার কাছে একটা ব্লগ বা ইউটিউব চ্যানেল থাকতে হবে তবেই আপনি গুগল এডসেন্সের বিজ্ঞাপন দেখিয়ে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।
google adsense থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো?
adsense থেকে অনলাইন ইনকাম


google adsense থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো?

  1. প্রথমে google adsense থেকে একাউন্ট তৈরি করুন।
  2. এবার আপনার ব্লগ বা ইউটিউব চ্যানেলকে এখান থেকে এপ্রভেল নিন। 
  3. যখন 10$ হয়ে যাবে আপনার এড্রেস ভেরিফাই করুন।
  4. যখন 100$ হয়ে যাবে আপনার bank এর মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন। 

চতুর্থ:- Google play store থেকে app দিয়ে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো? 

আমাদের যখনি কোন এপস প্রয়োজন হয় আমরা কোন কিছু না ভেবেই সরাসরি চলে যায় google play store এ তার কারণ আমরা জানি আমাদের প্রয়োজনীয় সমস্ত app আমরা এখানে পেয়ে যাবো। কিন্তু আপনি জানেন কি এই সকল এপস কারা তৈরি করে google play store এ আপলোড করেছে? 

অনেকেই মনে করেন এই সকল এপস গুগলের তৈরি কিন্তু তানা এগুলো আপনার আমার মতো সাধারণ মানুষ তৈরি করে আপনি মনে করলে আপনার পছন্দের কোন এপস তৈরি করে প্লেস্টোরে আপলোড করতে পারেন।

আমাদের প্রত্যেকের মোবাইলে অনেক এপস থাকে তবু আমরা প্লেস্টোর থেকে গেম, ব্রাউজার, ভিডিও এডিটিং এপস, ইত্যাদি নানান এপস ডাউনলোড করে থাকি আপনি মনে করলে এমন একটা এপস তৈরি করে Google admob থেকে অনলাইন ইনকাম করতে পারেন।
Google play store থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো
play store অনলাইন ইনকাম

Google play store থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো? 

  1. প্রথমে সুন্দর একটা এপস তৈরি করুন।
  2. আপনার এপসের সাথে admob যুক্ত করুন।
  3. আপনার তৈরি করা এপস play store এ আপলোড করুন।
  4. সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনার এপস শেয়ার করুন।
  5. যতো বেশি আপনার এপস ডাউনলোড হবে ততো বেশি আপনি টাকা আয় করতে পারবেন। 

পঞ্চম:- Google adwords থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো? 



গুগল এডওয়ার্ড কি? এই বিষয়ে আমরা আগেই আলোচনা করেছি। googlr adwords হচ্ছে গুগলের এমন এক প্লাটফর্ম যেখান থেকে আপনি আপনার ব্যাবসার প্রমোট করতে পারেন। আপনার ব্যাবসার keywords অনুসারে গুগল আপনার সাইট প্রথম পেজে দেখাবে। 

মনে করুন আপনার মোবাইলের দোকান আছে এখন আপনি ১০ হাজার টাকার মধ্যে কতোগুলো ফোন আছে তার একটা তালিকা দিলেন।  গুগলে কেউ সার্চ করলে আপনার সাইটের সেই তালিকা দেখে সে আপনার থেকে মোবাইল কিনতে পারে।

google adwords এর সাহায্যে আপনি শুধু মোবাইল না যেকোন ব্যাবসা শুরু করতে পারেন। এখানে আপনার প্রোডাক্টের নাম অনুসারে keword research করে তার search volume ও দেখতে পারেন। তবে google adwords এ কোন বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য আপনাকে কিছু pay করতে হবে।
Google adwords থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো?
adwords অনলাইন ইনকাম

Google adwords থেকে কিভাবে অনলাইন ইনকাম করবো? 

  1. প্রথমে google adwords সাইটে জান।
  2. এখানে একটা ফ্রি একাউন্ট তৈরি করুন।
  3. আপনার keywords খুজুন যাইতে আপনি বিজ্ঞাপন দেখাতে চায়ছেন। 
  4. google adwords এর সাহায্যে আপনার বিজ্ঞাপন চালু করুন।
  5. এই ভাবে google adwords থেকে আপনি টাকা আয় করতে পারেন। 
শেষ কথা final word

আমরা এই পোস্টে জানলাম গুগল থেকে অনলাইন ইনকাম  করার সেরা পদ্ধতি আশা করি  অনলাইন ইনকাম করার এই উপায় গুলো সকলের পছন্দ হয়েছে। এই পোস্টের বিষয়ে আপনার কিছু জানার থাকলে বা কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। 

গুগল থেকে অনলাইন ইনকাম এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে তাদেরও জানার সুযোগ করেদিন।
Read More

লিমিটের পরে কিভাবে ফেসবুক জন্ম তারিখ পরিবর্তন করবেন

Leave a Comment
আপনি কি আপনার ফেসবুকে জন্মদিন পরিবর্তন করতে চায়ছেন কিন্তু জানেন না কি করে ফেসবুক জন্ম তারিখ পরিবর্তন করে? যদি আপনার উত্তর হাঁ হয় তবে এই পোস্ট আপনার জন্য। আজ আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে জানবো কিভাবে ফেসবুকের জন্ম তারিখ পরিবর্তন করে। How to change facebook birthday bengali language 

অনেক সময় দেখা যায় ফেসবুকে জন্ম তারিখ পরিবর্তন করতে গিয়ে লিমিট আসে এর আগেও পরিবর্তন করা হয়েছে বলে There is a limit to how many times you can change your birthday, so you may have to wait a few days if you've recently changed it. তারা 2nd স্টেপ ফলো করুন।
Facebook birthday change after limit
ফেসবুক বার্থডে চেঞ্জ

কিভাবে ফেসবুকে জন্ম তারিখ পরিবর্তন করবো



Step-1 ফেসবুকে জন্ম তারিখ বা বার্থডে পরিবর্তন করা খুব সহজ তবু যারা জানেন না তাদের জন্য নিচের স্টেপ বলা হয়েছে।

সরাসরি ফেসবুক জন্ম তারিখ পরিবর্তন facebook birthday change link লিংকে ক্লিক করুন অথবা নিচের স্টেপ ফলো করুন। 
  1. প্রথমে ফেসবুকে লগইন করুন।
  2. এবার আপনার প্রোফাইলে গিয়ে Edit profile info ক্লিক করুন।  
  3. এখানে আপনার দেওয়া জন্ম তারিখ দেখতে পাবেন তার পাশে Edit ক্লিক করুন। 
  4. এখানে Drop Down মেনুর মধ্যে আপনার বার্থডে দেখতে পাবেন। 
  5. জন্ম তারিখ সিলেক্ট করে Save  ক্লিক করুন। 

ফেসবুক বার্থডে চেঞ্জ  বা জন্ম তারিখ পরিবর্তন করুন লিমিটের পড়েও



Step-2 আপনি যদি আগে কখনো ফেসবুকের জন্ম তারিখ পরিবর্তন করে থাকেন আর দেখেন আপনার জন্ম তারিখ পরিবর্তন হচ্ছে না বা কোন অপশন নেই জন্ম তারিখ পরিবর্তন করার। তবে নিচের স্টেপ ফলো করুন ২৪ ঘন্টার মধ্যে ফেসবুক বার্থডে পরিবর্তন হয়ে যাবে।

  1. প্রথমে facebook birthday change link এখানে ক্লিক করুন। 
  2. এবার Drop down করে আপনার জন্ম তারিখ সিলেক্ট করুন 
  3. এবার please select ক্লিক করে It’s my real birthday ক্লিক করুন। 
  4. নিচে থেকে send করে দিন।
ফেসবুক জন্ম তারিখ পরিবর্তন কিভাবে করবো

শেষ কথা (Note)
এই পদ্ধতিতে আপনি যতো বার খুশি আপনার জন্মদিন পরিবর্তন করতে পারবেন তবু বলবো । বার বার facebook birthday chang না করাই ভাল তাইতে আপনার আইডি নষ্ট হতে তাই যেটা আপনার সঠিক জন্মদিন সেটাই রাখুন তাহলে ফেসবুক আইডি নষ্ট হলেও আবার উদ্ধার করা সম্ভব হবে।
Facebook birthday change link

1. https://m.facebook.com/profile/edit/infotab/section/forms/?section=basic-info&cb=1589130113

2. https://m.facebook.com/help/contact/233841356784195?

ফেসবুক জন্ম তারিখ পরিবর্তন
ফেসবুকের জন্ম তারিখ পরিবর্তন
ফেসবুকে জন্ম তারিখ পরিবর্তন
ফেসবুক বার্থডে চেঞ্জ
Read More
Previous PostOlder Posts Home
Meet The Author

আমার নাম সন্তোষ মন্ডল (বান্টি)। আমি ভারতের হাওড়া জেলার বাসিন্দা। একটা প্রাইভেট লিমিটেড কম্পানিতে চাকরি করি এবং মাঝের মধ্যে ব্লগিং বিষয়ে এখানে লেখালিখি করি।

author